Home / LifeStyle / অ্যাপল সাইডার ভিনেগারের ৮ টি চমৎকার উপকারি দিক জেনে নিন

অ্যাপল সাইডার ভিনেগারের ৮ টি চমৎকার উপকারি দিক জেনে নিন

অ্যাপল সাইডার ভিনেগার ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বলা হয় সবচেয়ে উপকারি উপকরণ। এই ভিনেগার প্রতিদিন পরিমিত পরিমাণে খাওয়ার ফলে শুধুমাত্র ওজন যে নিয়ন্ত্রিত থাকে এবং বাড়তি ওজন ঝরে যায় সেটাই নয়, এটি আপনার পাকস্থলিকে পরিষ্কার রাখে। যার ফলে আপনার পরিপাক ক্রিয়া স্বাভাবিক থাকে এবং আপনি সুস্থ থাকেন।
অ্যাপল সাইডার ভিনেগারের ৮ টি চমৎকার উপকার

প্রকট গন্ধের এই তরল পদার্থটি অনেকের চক্ষুশূলের কারন হলেও এর গুণের শেষ নেই যেন! শুধুই যে আপনার ওজনের প্রতি এই তরল পদার্থটি যত্নশীল তা নয় কিন্তু। আপনার প্রতিদিনের বহু কাজের জন্যে তো বটেই, আপনার নিত্যদিনের রান্না এবং আপনার সৌন্দর্য চর্চার খেত্রেও ACV (Apple Cider Vinegar) দারণ একটা জিনিস।

১/ আপনার সালাদ ড্রেসিং এ ব্যবহার করতে পারেন অ্যাপল সাইডার ভিনেগার। কটু গন্ধর কথা ভেবে ভয় পাবেন না। সালাদ ড্রেসিং এর সাথে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার চমৎকারভাবে মিশে যায় বলে খেতে মোটেও খারাপ লাগে না।

২/ আপনার ওয়েট লস অথবা সকালের নাস্তার স্মুদিতে ব্যবহার করতে পারেন অ্যাপল সাইডার ভিনেগার।

৩/ অ্যাপল সাইডার ভিনেগারকে আপনি আপনার ফেসিয়াল টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। এই কথা শুনে অবাক হলেও সত্য হচ্ছে, ফেসিয়াল টোনার হিসেবে অ্যাপল সাইডার ভিনেগার দারুন কাজে দেয়। এক গ্লাস পানিতে ২ চা চামচ এসিভি ভালোভাবে মিশিয়ে এরপর নরম কাপড় অথবা তুলার সাহায্যে আলতোভাবে মুখ মুছে নিন। চাইলে সপ্তাহে ২-৩ বার এমন করতে পারবেন আপনি।

৪/ আপনি কি জানেন চুলের কন্ডিশনার হসেবে দারুন কার্যকরী এসিভি! আপনার পছন্দসই শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলার পর কন্ডিশনার হিসেবে এসিভি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন দারুন ঝরঝরে হয়ে গেছে আপনার চুল। কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করার জন্যে বড় এক মগ পানিতে এক টেবিল চামচ এসিভি মিশিয়ে নিন। ব্যাস তৈরি হয়ে গেলো আপনার জাদুকরি কন্ডিশনার।

৫/ স্টেক খেতে কে না ভালোবাসে? আর আপনি অন্যান্য উপাদানের সাথে কিছুটা এসিভি দিয়ে যদি আপনার স্টেক এর মাংস মাখিয়ে রাখেন তবে, মাংস নরম হবে বেশী।

৬/ হুট করেই খুব হেঁচকি উঠছে। কোন পদ্ধতিতেই বন্ধ হচ্ছে না? এক চা চামচ এসিভি এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে নিয়ে খেয়ে ফেলুন। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই দেখুন জাদু!

৭/ প্রতিদিন সকালে ঝকঝকে দাঁত এবং একদম ফ্রেশ নিঃশ্বাস পেতে চাইলে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে আধা গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক চা চামচ এসিভি মিশিয়ে নিন এবং এই মিশ্রণটি দিয়ে কুলি করে ফেলুন।

৮/ আপনার যদি দুর্গন্ধযুক্ত নিঃশ্বাস এর সমস্যা থেকে থাকে তবে সেক্ষেত্রে এসিভি হতে পারে দারুণ এক জাদু। এসিভি আপনার মুখের খারাপ ব্যকটেরিয়াকে মেরে ফেলে এবং দাঁত ও দাঁতের মাড়িকে পরিষ্কার রাখে। ফলে এটি আপনার মুখের দূর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে এবং দাঁত ও দাঁতের মাড়িকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *